এলোমেলো কথাবার্তা ১২

আমার ওয়েবসাইটে সবচাইতে যে লেখাটার বেশি রিয়েক্ট পেয়েছি সে লেখাটার নাম ‘যে লেখার শিরোনাম নাই’। সাইটের সবচাইতে বেশি পড়া ১০টা লেখার মধ্যে অবশ্যই সেই লেখাটা আছে। ঐ লেখার জন্য ব্যক্তিগতভাবে যে কয়টা ম্যাসেজ পেয়েছি সেই ধারণা থেকে বলতেই পারি ঐটা একটা মন খারাপ করা লেখা। আমার যদি প্রথম দশটা মন খারাপ করা লেখা থাকে তাহলে ঐটা অবশ্যই দশটার মধ্যে প্রথমদিকে থাকবে। কিন্তু মজার বিষয় হলো আমার কোন মন খারাপ লেখাই মন খারাপ করে লেখা না। প্রতিটা লেখাই আনন্দঘন সময়ে লেখা। কারণ আমি মন খারাপ থাকলে খুব একটা লিখতে পারি না। মন খারাপ থাকলে আমি প্রচুর গান শুনি, পড়াশুনা করি, চুপচাপ থাকি। প্রতি লেখার পিছনে একটা ভাবনা থাকে, চিন্তা কাজ করে এবং সেটা ঐ সময়টাকে ধারণ করে। যেমন ‘যে লেখার শিরোনাম নাই’ লেখাটা আমি লিখেছিলাম তখন মাত্র ইউল্যাবে ঢুকেছি। তখন আমার বেতন ধুম করে ৮ থেকে ১৪ হাজারে উঠেছিল। এক ধাক্কায় ৬ হাজার টাকা বেতন বেড়ে যাওয়া মানে অনেক বড় একটা ঘটনা। এখন কথা হইল আমি আনন্দের দিনে ঐসব গল্প কেন বলি বা লিখি? আমি আসলে প্রচণ্ড আনন্দের দিনে পেছনে তাকাতে পছন্দ করি। আমি আমার ঐ আহত গল্পগুলা থেকে নতুন নতুন স্বপ্ন দেখি…

৩০ ভাদ্র ১৪২৫

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.